1. km.mintu.savar@gmail.com : admin :
  2. coderbruh@protonmail.com : demilation :
  3. editor@biplobiderbarta.com : editor :
  4. same@wpsupportte.com : same :
শিরোনাম:
আশুলিয়ায় টিচার্স আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষার মান উন্নয়নে অবিভাবক সমাবেশ অনুষ্ঠিত । তাজরীন গার্মেন্টস এর মালিক দেলোয়ার হোসেনকে শাস্তি দেওয়া পরিবর্তে তাকে পুরস্কৃত করা হয়েছে বিপ্লবের জগতে এক অগ্নিসম অগ্রদূতের নাম ফিদেল কাস্ত্রো পাবনার সাঁথিয়ায় শীত যতই জেঁকে বসছে ব্যস্ততা বেড়েছে লেপ-তোষকের কারিগরের || খেলার নামে যারা জনগণের সাথে ফাউল করে তাদের লাল কার্ড দেখাতে হবে কমিউনিস্টরা ছলচাতুরী করতে পারে ভাবতে পারিনি-ইদ্রীস আলী রেকার বিলের নাম করে রিক্সা চালকদের কাছ থেকে জোর করে চাঁদা আদায় বন্ধ করতে হবে পাবনার কাশিনাথপুরে প্রধান শিক্ষক পারভীন জাহানের বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত || নারীর শিক্ষা ও অর্থনৈতিক সক্ষমতা সবকিছুর ঊর্ধ্বে: স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী পাবনার কাশিনাথপুরে অ্যাসোসিয়েশন অফ সৌখিন ফুটবল ক্লাব উদ্বোধন উপলক্ষে আনন্দ র‍্যালী অনুষ্ঠিত

শ্রম আইন লঙ্ঘনকারী মালিকদের ছবি মোড়ে মোড়ে টাঙ্গীয়ে দেওয়া উচিৎ

Biplobider Barta // বিপ্লবীদের বার্তা
  • প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ৭ এপ্রিল, ২০২২
  • ২৮১ বার পড়া হয়েছে
KM Mintu
KM Mintu

আশুলিয়া’র জামগড়া অবস্থিত ফ্যাশনিট সোয়েটার কারখানার শ্রমিকরা দাবী জানিয়েছিল পিস রেট বাড়াতে হবে এবং মেশিনের স্প্রিট বাড়ানো যাবেনা।

মালিকপক্ষ শ্রমিকদের এই দাবীকে উপেক্ষা করে আজ ৬ এপ্রিল ২০২২ সকালে শ্রম আইনের ১৩/১ ধারাকে বে-আইনী ভাবে কাজে লাগিয়ে কারখানা বন্ধ ঘোষণা করে এবং কারখানার ১১০ জন শ্রমিককে চাকুরিচ্যুত করে তাদের ছবি কারখানার গেইটে টাঙ্গীয়ে দেয়। অথচ মালিকপক্ষ ইচ্ছে করলে শ্রমিকদের সাথে আলোচনা করে বিষয়টা সমাধান করতে পারতেন কিন্তু মালিকপক্ষ তা করেননি। বাস্তবে মালিকপক্ষ শ্রমিকদের চাকুরিচ্যুত করার জন্য এই ষড়যন্ত্র করেছেন।

ইদানীং আমি দেখছি গার্মেন্ট কারখানায় শ্রমিকরা কোন দাবী উত্থাপন করলেই শ্রমিকদের চাকুরিচ্যুত করা হচ্ছে এবং চাকুরিচ্যুত শ্রমিকদের ছবি কারখনার গেইটে টাঙ্গীয়ে দেওয়া হচ্ছে সাথে ইন্টারনেটে বিজিএমইএ এর ডাটাতে তাদের নাম কালো তালিকায় দেওয়া হচ্ছে। চাকুরিচ্যুত শ্রমিকরা অন্য কারখানায় চাকুরির জন্য আবেদন করলে তাদের চাকুরীতে নেওয়া হচ্ছেনা।

শ্রমিকরা কারখানায় কোন দাবী উত্থাপিত করলেই তো আর সে দোষী হয়ে যায়না কিন্তু শ্রমিকদের দোষী প্রমান না করেই তাদের ছবি কারখানার গেইটে টাঙ্গীয়ে দেওয়াটা গার্মেন্ট মালিকদের জন্য একটা বড় অপরাধ। যে সব গার্মেন্ট মালিকরা চাকুরিচ্যুত শ্রমিকদের ছবি কারখনার গেইটে টাঙ্গীয়ে দিচ্ছে ও ইন্টারনেটে বিজিএমইএ এর ডাটাতে শ্রমিকদের নাম কালো তালিকায় দিচ্ছে সেই সব গার্মেন্ট মালিকদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া উচিৎ।

আর যদি তা না হয় তাহলে-

যে সব গার্মেন্ট মালিকরা সময় মত বেতন প্রদান করেন না, শ্রমিকদের উপর নির্যাতন করেন, কারখানায় ট্রেড ইউনিয়ন গঠন করতে বাধা প্রদান করেন, শ্রম আইন অনুযায়ী শ্রমিকদের সুযোগ সুবিধা প্রদান করেনা, নিয়মিত শ্রম আইন লঙ্ঘন করেন সেই সব খারাপ গার্মেন্ট মালিকদের ছবি শিল্পাঞ্চলের বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে টাঙ্গীয়ে দেওয়া উচিৎ।

লিখেছেনঃ খাইরুল মামুন মিন্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক, গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর

আমাদের পেজ