1. km.mintu.savar@gmail.com : admin :
  2. coderbruh@protonmail.com : demilation :
  3. editor@biplobiderbarta.com : editor :
  4. same@wpsupportte.com : same :
শিরোনাম:
বিশ্ববাজারে ধারাবাহিকভাবে পড়ছে অপরিশোধিত তেলের দর দলীয় সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়: মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম ইজিবাইক নিয়ে যেসব প্রশ্ন করে না গণমাধ্যম প্রয়োজন শুধু আত্মবিশ্বাস আন্তর্জাতিক কুরআন প্রতিযোগিতায় হাফেজ সালেহ আহমদ তাকরিমের তৃতীয় স্থান অর্জন || পারি ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্য শিক্ষা কার্যক্রম শুরু । হামলা- মামলা- খুন করে সরকার মানুষকে ভয় দেখাচ্ছে শ্রমিকনেতাদের নামে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করে রিক্সা-ভ্যান শ্রমিকদের দাবী মেনে নিন পাবনার বেড়া নতুন ভারেঙ্গা ইউনিয়নে শিয়ালের কামড়ে আহত ৪০ || সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ার তরুণ যুবক রিয়ান আহমেদ নয়ন মানব সেবায় কাজ করে যাচ্ছে ।

বকেয়া বেতন, হাজিরা ও বোনাসের দাবিতে গাজীপুরে সড়ক অবরোধ করে শ্রমিকদের বিক্ষোভ

Khairul Mamun Mintu
  • প্রকাশ : শুক্রবার, ৯ জুলাই, ২০২১
  • ৫৭৩ বার পড়া হয়েছে

বকেয়া বেতন, হাজিরা ও বোনাসের দাবিতে গাজীপুরে সড়ক অবরোধ করেছেন একটি পোশাক কারখানার শ্রমিক ও কর্মচারীরা।৮ জুলাই বৃহস্পতিবার সকালে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের লক্ষ্মীপুরা এলাকায় ঢাকা-গাজীপুর সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ মিছিল করেন তাঁরা

পোশাকশ্রমিক ও শিল্প পুলিশ সূত্রে জানা যায়, লক্ষ্মীপুরা এলাকার স্টাইল ক্রাফট লিমিটেড নামের একটি পোশাক কারখানায় প্রায় ৪ হাজার শ্রমিক ও কর্মচারী কাজ করেন। গত কয়েক বছরে কারখানার মালিক ও কর্তৃপক্ষ শ্রমিক-কর্মচারীদের ৮ মাসের বেতন ও হাজিরা বকেয়া ফেলেছে। প্রতি মাসেই বেতনের জন্য শ্রমিকদের আন্দোলন করতে হয়। গত ঈদের আগেও আন্দোলন করে বেতন নিতে হয়েছে। মে মাসে আন্দোলন করা হলে কারখানার কর্তৃপক্ষ জানায়, ১৪ জুন বেতন দেওয়া হবে। কিন্তু সেদিন বেতন না দিয়ে ফের ২২ জুন, এরপর ২৮ জুন বেতন দেওয়া তারিখ ঘোষণা করা হয়। এভাবে টালবাহানা করে আজ বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত তাঁদের বেতন দেওয়া হয়নি। এতে শ্রমিক-কর্মচারীরা ক্ষুব্ধ হয়ে আজ সকাল ৯টায় কারখানার ভেতরে বিক্ষোভ শুরু করেন। একপর্যায়ে উত্তেজিত শ্রমিকেরা কারখানার সামনে গাজীপুর-ঢাকা মহাসড়ক বাঁশের ব্যারিকেড দিয়ে অবস্থান নেন। এতে দুই পাশে পণ্যবাহী যানবাহনের যানজট সৃষ্টি হয়।

শ্রমিকেরা জানান, বেতন না পেয়ে বাড়িভাড়া ও দোকানের বাকি খরচের টাকা পরিশোধ করতে পারছেন না। এভাবে মানবেতর জীবনযাপনে তাঁদের দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে। তাই আট মাসের বকেয়া বেতন, হাজিরা ও বোনাসসংক্রান্ত ন্যায্য পাওনা তাঁরা দ্রুত বুঝে চান।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর

আমাদের পেজ